লেবুপানি : গুনাগুণ ও স্বাস্থ্য উপকারিতা

জীবনধারা ডেস্ক

সুস্থ শরীরের জন্য পর্যাপ্ত পানি পান করা কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেই কথা আমরা সবাই জানি। কিন্তু এই দৈনন্দিন পানির পানের সাথে লেবুর রস মিশিয়ে দিলে তা হতে পারে বিভিন্ন শারীরিক সমস্যার প্রতিরোধক। সাধারণত লেবু খাবারের স্বাদ বাড়ানোর জন্যে খেয়ে থাকলেও এতে আছে ভিটামিন এবং নানা খনিজ উপাদান। লেবু পানি ওজন কমাতে কাজ করে, কিডনি ভালো রাখে, হজমে সাহায্য করে ও শরীর থেকে নানা বিষাক্ত পদার্থ দূর করে। খাদ্য ও পুষ্টিবিষয়ক এক ওয়েবসাইট অবলম্বনে লেবুপানি পানের নানান উপকারিতা ও গুনাবলী এখানে দেওয়া হল।

পেট ব্যথা সারাতে: হজমের সমস্যা একটি অতি প্রচলিত সমস্যা। যার অত্যন্ত কার্যকরী সমাধান কুসুম গরম লেবুপানি। লেবু-সরবত রক্ত পরিশোধনে সাহায্য করে। পাশাপাশি বদহজম, কোষ্ঠকাঠিন্য এবং শরীরের দুষিত পদার্থ দূর করে।

ত্বকের যত্নে: বাজারের সব প্রসাধনীই দেয় স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বকের প্রতিশ্রুতি। তবে এজন্য যেমন গুনতে হয় হয় টাকা, তেমনি আছে হিতে বিপরীত হওয়ার আশঙ্কাও। কম খরচে আর নিশ্চিত উপকার পেতে বেছে নিতে পারেন লেবুর রস। ত্বক ভালো রাখার পাশাপাশি বয়সের চাপ কমাতে, ব্ল্যাকহেড ও বলিরেখা দূর করতে এটি অত্যন্ত উপকারী।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: লেবুতে থাকে অনেকটা ভিটামিন সি এবং লৌহ যা ঠাণ্ডাজ্বর জাতীয় রোগের বিরুদ্ধে ভীষণ কার্যকর। এতে আরো রয়েছে পটাসিয়াম যা মস্তিষ্ক এবং স্নায়ুকে সক্রিয় রাখে এবং রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। এতে থাকা অ্যাসকরবিক এসিড প্রদাহ দূর করে এবং অ্যাজমা বা এজাতীয় শ্বাসকষ্টের সমস্যা কমায়। এছাড়াও লেবু কফ কমাতে সাহায্য করে।

উচ্চ রক্তচাপ কমাতে: লেবুতে থাকা পটাশিয়াম উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়াও বমিভাব কমাতে এবং ঝিমঝিমভাব কমাতেও এটি উপকারী।

শরীরের পিএইচ মাত্রা ঠিক রাখে: এর অর্থ হলো শরীরের অম্ল-ক্ষারকের মাত্রা ঠিক রাখে লেবু। লেবু হজম হয়ে যাবার পর কিন্তু আর অম্লীয় থাকে না, ক্ষারীয় হয়ে যায়। ফলে এটি রক্তে মিশে যায় এবং শরীরের অম্লতা বাড়তে দেয় না। অম্লতা বেড়ে গেলেই দেখা দেয় রোগ।

হজমে সহায়ক: শরীর থেকে অযাচিত পদার্থ এবং টক্সিন বের করে দেয় লেবুর রস। আমাদের হজমের জন্য ব্যবহৃত লালা এবং পাচক রসের সাথে বেশ মিল আছে এর গঠন এবং কাজের। আর যকৃতের থেকে হজমে সহায়ক এক ধরণের পদার্থ নিঃসরণেও এটি সহায়তা করে।

মুখের স্বাস্থ্য রক্ষা: মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে এবং মাঢ়ির রক্তক্ষরণ থামাতে লেবু পানি বেশ উপকারী। দাঁত ব্যথা কমাতেও এটি কার্যকর।

কৃমি দূর করতে: ঘন ঘন কৃমির আক্রমণে ক্লান্ত? প্রতিদিন এক গ্লাস লেবু পানি পান করুন আর কৃমির সাথে যুদ্ধ জয় করুন।

শ্বাস যন্ত্রের সমস্যা দূর করতে: লেবু পানি কফ সারায়। ফলে শ্বাস নেওয়ার সমস্যা দূর হয়। হাঁপানি রোগীদের জন্যও এটি উপকারী।

মানসিক স্বাস্থ্য: মন ফুরফুরে করে দিতে অনন্য এই লেবু পানি। দুশ্চিন্তা, মানসিক চাপ কমানোর ক্ষমতা রয়েছে লেবুর সরবতে।

প্রদাহ কমাতে: গলা জ্বালাপোড়া কমাতে সহায়ক লেবুপানি। কারণ এতে আছে অ্যান্টিব্যক্টেরিয়াল উপাদান। লবণ পানিতে যাদের উপকার হয় না তারা লেবু পানি দিয়ে গড়গড়া বা কুলিকুচি করতে পারেন।

বয়সের ছাপ কমাতে: বয়স কমাতে না পারলেও লেবুপানি আপনার বাহ্যিক তারুণ্য ধরে রাখতে পারে। তাছাড়া লেবুপানিতে নেই কোনো ক্যালরি পাশাপাশি এটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্টও।

ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রনে: লেবু পানি দেহের ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রনে রাখে। রোজ পান করলে উচ্চরক্তচাপ ১০ শতাংশ কমে যায়। লেবু পানি শরীরের রক্তবাহী ধমনী ও শিরাগুলোকে পরিষ্কার রাখে।