স্মার্টফোন পানিতে ভিজে গেলে ৫টি কাজ করুন!

বর্ষা কালের বৃষ্টিতে বা রাস্তার জমে থাকা পানিতে পড়ে গিয়ে ভিজে যেতে পারে আপনার স্মার্টফোন । অথবা কোথাও কফি বা চা পান করছেন হাতের সাথে লেগে চা কফিতে ভিজে যেতে পারে আপনার স্মার্টফোন। কি ভাবছেন আপনার শখের স্মার্টফোনটি কি চিরদিনের জন্যই বন্ধ হয়ে গেল? আপনি আর আপনার ফোনটি আর ব্যবহার করতে পারবেন না? আপনি অবশ্যই আপনার ফোনটি আবার ব্যবহার করতে পারবেন যদি ভিজে যাওয়ার পর কিছু পরামর্শ মেনে চলেন।

দ্রুত ফোন বন্ধ করুনঃ
ফোন পানিতে ভিজে গেলে প্রথমেই ফোনটি বন্ধ করে ফেলুন। তারপর ফোনে ব্যবহৃত এক্সেসরিজ গুলো আলাদা করে ফেলুন, যেমনঃ কভার, হেডফোন ইত্যাদি। একে একে ব্যাটারি, সিম কার্ড এবং মেমোরি কার্ডটিও খুলে ফেলুন এবং এগুলোতে লেগে থাকা পানি সতর্কতার সাথে মুছে ফেলুন।

ব্যাটারি পরীক্ষা করুনঃ
মনে রাখবেন পানিতে ভিজে গেলে মোবাইল ফোনের কোন ওয়ারেন্টি আপনি পাবেন না। সে ক্ষেত্রে আপনার ফোনটি ভালো আছে কিনা তা পরীক্ষা করার জন্য আপনি ব্যাটারিটি পরীক্ষা করতে পারেন। ব্যাটারিতে একটি সাদা রঙের ক্ষুদ্র স্টিকার থাকে যাতে পানি লাগলে লাল বা গোলাপি রঙ ধারন করে।

মুছে ফেলুন লেগে থাকা পানিঃ
টিস্যু বা নরম কাপড় দিয়ে মুছে ফেলতে পারেন ফোনে লেগে থাকা পানি। ভ্যাকুয়াম ক্লিনার বা হেয়ার ড্রায়ার ও ব্যবহার করতে পারেন মোবাইল শুকানোর জন্য। ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ব্যবহার করলে খুব সাবধান এ করবেন। হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার না করাটাই সবচেয়ে ভালো।

চালের মধ্যে ফোনটি রাখুনঃ
ভেজা জিনিসের পানি শুষে নেওয়ার ক্ষমতা চালের অনেক বেশি। তাই চালের মধ্যে আপনার ফোনটি রেখে দিতে পারেন। তবে এ সময় ফোন চালু করবেন না এবং ব্যাটারি লাগাবেন না। এভাবে ২৪ ঘণ্টা রাখুন। ২৪ ঘণ্টা পরে ফোনটি রিস্টার্ট দিন। ফোনের পোর্টগুলো ও দেখুন সেখানে পানি লেগে আছে কিনা লেগে থাকলে শুকনো কাপড় বা টিস্যু দিয়ে মুছে ফেলুন। ফোন রিস্টার্ট দেওয়ার পর যদি ফোনটি চালু না হয় তখন ব্যাটারি খুলে ফেলে সার্ভিস সেন্টার এ নিয়ে যান।
স্মার্টফোন

কীভাবে শুকাবেনঃ
ফোনটি সরাসরি ফ্যান এর বাতাসে শুকাবেন না। হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার না করাটাই সবচেয়ে ভালো। ফোনটি শুকানোর জন্য শুকনো কাপড় বা টিস্যু সবচেয়ে ভালো। এয়ার কন্ডিশন ভেন্টের বাতাস ব্যবহার করতে পারেন ফোনটি শুকানর জন্য।

পদ্ধতিগুলো জেনে রাখুন। কখনও যদি এ ঘটনার শিকার হয়ে যান পদ্ধতিগুলো অনুসরন করুন। আশা করছি আপনার ফোনটি আবার ব্যবহার করতে পারবেন।